top of page
  • Writer's picturemonoranjan das

Bengali Poem



স্বপ্নের মানসী 

মনোরঞ্জন দাস 

দিনটা যেন অন্য দিনের তুলনায় ছিল ,

একটু অন্যরকম  । 

রাতুল ফিরছিল তার অতি প্রিয় মানসীর বাড়ি থেকে ,

মনের মধ্যে ছিল নতুন স্বপ্নের পূর্ণ ডালি । 

আনন্দে আত্মহারা ,

পুরনো কাজ তার আজকে হয়েছে সারা । 

সে আজ আবার নতুন ভাবে নিজেকে,

খুঁজে পেলো আবার আজকে । 

দীর্ঘ দিন ধরে অপেক্ষা করছিলো সে,

এই অকল্পনীয় মুহুর্তগুলোর জন্য । 

সেই প্রথম দেখা হয়েছিল সরস্বতী পূজার ,

পুস্পাঞ্জলি দেওয়ার সময় । 

সে এসে ছিল দুধে -আলতায় রাঙানো একটা শাড়ি পরে ,

দারুণ লাগছিল তাকে সেই মুহুর্তে ঠাকুর ঘরে । 

সেই সময়টা আজ থেকে প্রায় বছর সাতেক পূর্বে ,

কে জানতো আজ সেই স্বপ্নের পরী আমার সাথেই ঘুরবে । 

আমার মতো অচেনা গলির বোকা ছেলেটার প্রেমে ,

হাবুডুবু খাবে সেই রূপসী প্রথমে । 

সে তো মানুষ হয়েছে অতি বিলাস -বহুল পরিবারে ,

সে কি না ভালোবাসবে আমারে । 

ভাবিনি কখনো ,কল্পনাও করিনি স্বপ্নে ,

সে আমার শুন্য জীবন ভরে দেবে রত্নে । 

ভালোবাসার তরী ভাসিয়ে ছিল স্বপ্নের সাগরে ,

প্রেমের তাজমহল নির্মিত করেছিল আমার মনের মন্দিরে । 

মায়ের কোলে শুয়ে শুয়ে গল্প শুনতাম শৈশবে ,

স্বপ্নের পরী এসে আমার জীবন সাজাবে । 

মায়ের কাছে শোনা গল্পই আজ মনের গভীরে ,

বাসা বেঁধেছে কী সুন্দর ফুলের সমাহারে । 

সেই পূজার দিনে যখন দেখেছিলাম তাকে ,

সেই অপূর্ব মুহুর্তেই মনের মন্দিরে ঠাঁই দিয়েছিলাম যাকে । 

আমি মানুষ হয়েছি আমার মায়ের ভাঙা আঙিনাতে ,


কখনো খেয়েছি তো কখনো থেকেছি বিনা আহারেতে । 

মায়ের ছেঁড়া শাড়ির আঁচল ধরে কাটতো ,

আমাদের দুঃখের সংসারে যেদিন যেটুকু খাবার জুটতো । 

আমাদেরকে ছেড়ে বাবা কখন যে চলে গিয়েছে ,

মনেই পড়ে না আমার সে দিন গুলো কিভাবে কেটেছে ।

মায়ের ওই শুকনো মুখের দিকে পারতাম না চাইতে ,

শারদীয়ার পূজারদিনে যখন মনে হতো কিছু খাইতে ।

মায়ের শূন্য ঘরে কয়েকটা পুরনো শাড়ি ,

আর থালা -বাসনের সাথে একটা ভাতের হাঁড়ি ।

সে হাঁড়ি উনুনে চড়তো পাড়া প্রতিবেশীদের দয়াতে ,

কিংবা মায়ের ওই কঠোর পরিশ্রমের বিনিময়েতে ।

কিন্তু আজ মায়ের জন্য কিনেছি নতুন একটা তাঁতের শাড়ি ,

কিছু মিষ্টি কিনেছি মানসীর সাথে ,নিয়ে যাব বাড়ি ।

মানসী বলেছে মানুষের বিচার অর্থ দিয়ে করা যায় না ,

মনের মানুষকে যেন খুঁজে পাই এই ছিল তার বায়না ।

মানসীর এই অপরূপ গুণে মুগ্ধ হয়েছি আমি ,

ও আমাকে মেনে নিয়েছে আমিই হব তার প্রকৃত স্বামী ।

এই রকম এক আনন্দের দিনে মানসী থাকবে আমার মনের অন্তরে ,

মায়ের অনুমতি নিয়ে মানসীকে নিয়ে যাব ওই জীর্ণ কুটিরে ।

যদি মা তার আশীর্বাদে আমাদেরকে ভরিয়ে দেয় আজকে ,

জীবনের নতুন সূর্যোদয় হবে যা আলোকিত করবে এই সমাজকে ।

-----------*******-----------


2 views0 comments

Recent Posts

See All

My Pets

মিঠাই রাণী মনোরঞ্জন দাস মিঠাই রাণী , মিঠাই রাণী , কোথায় তুমি আছো ? আমি আছি তিমায়ের কাছে। মিঠাই রাণী ,মিঠাই রাণী , কতো তুমি ভালো। আমি ভালো তোমার মতো , তুমি যেমন ভালো। মিঠাই রাণী ,মিঠাই রাণী , কোথায়

Raas Purnima

রাস পূর্ণিমা মনোরঞ্জন দাস আজ রাস পূর্ণিমা , খুব সুন্দর সাজে সেজেছে চন্দ্রীমা। অপরূপ রূপের অধিকারী , তার তুলনা একটু না হয় করি। গতকাল আমি অনেক ভেবেছি , একবার এটা তো একবার ওটা করেছি। আসলে জীবনে আমরা যা

Bengal Tiger

দাদা মনোরঞ্জন দাস বাংলার দাদার প্রথম পায়ের ছোঁয়া পেয়েছিল , কলকাতার বেহালা ,সেখানেই তার জন্ম হয়েছিল। ৮ই জুলাই ১৯৭২ সালে তার জন্ম হয়েছিল , মাতা নিরূপা গাঙ্গুলীর কোল আলো করেছিল। পিতা চন্ডীদাস গাঙ্গুল

Comments


bottom of page