top of page
  • Writer's picturemonoranjan das

Mahanayak Uttam Kumar

মহানায়ক মনোরঞ্জন দাস

পৃথিবীর বুকে এক উজ্জ্বল নক্ষত্রের জন্ম হয়েছিল ,

৩রা সেপ্টেম্বর ১৯২৬ সালে উত্তর কলকাতায়।

আমাদের বাংলার গর্ব তিনি ,

বহু বাংলা সিনেমা উপহার দিয়েছেন যিনি।

ছেলেবেলা থেকে দেখে আসছি নানান ছায়াছবি,

কখনো বেকার ,কখনো ডাক্তার ,কখনো কবি।

শতশত চরিত্রের কী দারুন সমাহার ,

দিতেন দর্শকদের মনের মতো উপহার।

তাঁর নাম মহানায়ক উত্তম কুমার ,

সকলের প্রিয় ,তোমার ও আমার।


তাঁর আসল নাম অরুন কুমার চট্টোপাধ্যায় ,

মাতা চপলা দেবী ও পিতা সাতকড়ি চট্টোপাধ্যায়।

বাংলা চলচিত্র জগতের সুনামধন্য তারকা ,

তাঁকে নিয়ে কোনোদিনই ছিল না কোনো আশঙ্কা।

তিনি বাংলা ছায়াছবির প্রধান মূল ছিলেন ,

অনেকেই তাঁকে নিয়ে মূল্যবান মন্তব্য করেছিলেন।

১৯৪২ সালে ম্যাট্রিক পাস করেন ,গোয়েঙ্কা কলেজে ভর্তি হন ,

ছেলেবেলা থেকেই যাত্রা ও থিয়েটারের প্রতি আকর্ষিত হন।

১৯৪৭ সালে মায়াডোর নামের হিন্দি ছবিতে অভিনয় করেন ,

দৈনিক পাঁচ সিকি পারিশ্রমিকে কাজ করেন।





পরের বৎসর মাত্র তেরো টাকা পারিশ্রমিকের বিনিময়ে ,

দৃষ্টিদান ছবিতে কাজ করেন সেই সময়ে।

কিন্তু পরপর বেশ কয়েকটি সিনেমায় সফল হতে পারেন নি ,

ফলে তাঁকে অসফল অভিনেতা বলতে কেউ ছাড়েনি।

তারপর ভালোবেসে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন গৌরী গাঙ্গুলির সাথে ,

এরপর এল তাদের সন্তান গৌতম এই পৃথিবীতে।

পাহাড়ী সান্যাল নাম বদলে রাখেন উত্তম কুমার ,

বসু পরিবার ছবিতে অভিনয় করে সাফল্য পান উত্তম কুমার।

তারপর সুচিত্রা সেনের সাথে অভিনয় জগতে তোলপাড় করে ,

আজও সাড়ে চুয়াত্তর ছবি জীবন্ত হয়ে আমাদেরকে মনোরঞ্জন করে।


বেশ কয়েকটি ছবিতে সুচিত্রা সেনের সাথে অভিনয় করেন তিনি ,

সেরা রোমান্টিক জুটি হিসেবে নাম অর্জন করেন যিনি।

মহান পরিচালকের সত্যজিৎ রায়ের নায়ক ছবিতে অতুলনীয় অভিনয় ,

সকলের মনকে করে নিলেন জয়।

হারানো সুর ছবিতে অভিনয় করার জন্য ,

রাষ্ট্রপতির প্রশংসা পত্র পেয়ে হলেন ধন্য।

চিড়িয়াখানা ও এন্টনী ফিরিঙ্গী ছবিতে অসাধারণ অভিনয় করেছিলেন ,

তার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার তিনি পেয়েছিলেন।

তিনি পরে হিন্দি ছবিতে অভিনয় করেন ,

প্রচুর ছবি বাংলার মানুষকে উপহার দেন।


আমাদের জীবনে অনেক তারকা আসে ,

যারা আমাদের মন -সমুদ্রে ভাসে।

নায়ক থেকে মহানায়ক হওয়ার জন্য করেছিলেন কঠোর পরিশ্রম ,

তাঁর উল্লেখযোগ্য ছবি হল আনন্দ আশ্রম।

জীবনের শেষের দিকের কিছুটা সময় সুপ্রিয়া দেবীর সাথে ছিলেন ,

আসল জীবনেও তিনি মহান ছিলেন।

সেই মহানায়কের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে কলকাতা মেট্রো ,

টালিগঞ্জ অঞ্চলের স্টেশনটির নাম মহানায়ক উত্তম কুমার মেট্রো।

তিনি থাকাকালীন তাঁর মতো অভিনেতা কেউ ছিল না ,

আজও তাঁর মতো অভিনেতা মেলে না।

তিনিই সবার সেরা ,চিরদিনের সেরা নায়ক ,

বাংলার রুপোলী পর্দার মহানায়ক।

--------******---------



Thanks for supporting me. Please comment share and follow me.



About the life of Mahanayak Uttam Kumar.

6 views0 comments

Recent Posts

See All

My Pets

মিঠাই রাণী মনোরঞ্জন দাস মিঠাই রাণী , মিঠাই রাণী , কোথায় তুমি আছো ? আমি আছি তিমায়ের কাছে। মিঠাই রাণী ,মিঠাই রাণী , কতো তুমি ভালো। আমি ভালো তোমার মতো , তুমি যেমন ভালো। মিঠাই রাণী ,মিঠাই রাণী , কোথায়

Raas Purnima

রাস পূর্ণিমা মনোরঞ্জন দাস আজ রাস পূর্ণিমা , খুব সুন্দর সাজে সেজেছে চন্দ্রীমা। অপরূপ রূপের অধিকারী , তার তুলনা একটু না হয় করি। গতকাল আমি অনেক ভেবেছি , একবার এটা তো একবার ওটা করেছি। আসলে জীবনে আমরা যা

Bengal Tiger

দাদা মনোরঞ্জন দাস বাংলার দাদার প্রথম পায়ের ছোঁয়া পেয়েছিল , কলকাতার বেহালা ,সেখানেই তার জন্ম হয়েছিল। ৮ই জুলাই ১৯৭২ সালে তার জন্ম হয়েছিল , মাতা নিরূপা গাঙ্গুলীর কোল আলো করেছিল। পিতা চন্ডীদাস গাঙ্গুল

Comments


bottom of page