top of page
  • Writer's picturemonoranjan das

The Polution

পরিবেশ দূষণ মনোরঞ্জন দাস


মোরা অতীতেই বড়ো ভালো ছিলাম ,

ভোরবেলা পাখির কুজনে ঘুম থেকে উঠতাম।

পাশের বাড়ির কাকিমা তখন উঠোন ঝাঁট দিত ,

পুরোহিত কাকু এর ওর গাছ থেকে ফুল তুলে বেড়াত।

বিন্দুর মা গাই -বাছুর নিয়ে কাঁঠালগাছের তলায় ,

প্রতিদিন একই সময় দুধ দুইতে থাকে সেথায়।

রামুর বাবা কাজ করতো দূরে ওই চটকলে ,

দেরি যাতে না হয় যেত তাড়াতাড়ি সাইকেলে।

মন্ডল জ্যাঠামশাই মুদিখানার দোকানের সামনে দেয় জল ,

পথের ধারে পুকরে বাতাস লেগে জল করে টলমল।


সকাল বেলাটা খুব মনোরম লাগতো ,

ধীরে ধীরে গ্রামবাসীরা সকলে উঠতো।

নির্মল বাউল একতারা নিয়ে পুরো গ্রাম গান গেয়ে যেত ,

আমাদের মতো কিছু ছেলে তার পিছু পিছু দৌড়াত।

আমবাগান,জামবাগান ,কলাবাগানে ঘেরা ,

তাই তো সেকাল একালের চেয়ে সেরা।

চাষিরা মাঠে সোনার ফসল ফলাতো ,

চারিদিক সবুজ আর সবুজে ভরা থাকতো।

জেলেরা বাঁশে বাঁধা জাল দিয়ে বিলে মাছ ধরতো,

আর তাদের বাড়ির মহিলারা বাড়ি বাড়ি সেই মাছ বিক্রী করতো।





কিন্তু আজ আর সেই অপরূপ দৃশ্য যেন অমিল ,

চারিদিকে কলকাখানার ধোঁয়ার স্তরে ভরেছে খাল -বিল।

পথের ধারের গাছগুলি যেন হারিয়েছে তাদের সবুজের বাহার ,

যেন অনাথ শিশুরা কতদিন খায়নি তাদের আহার।

ভোরবেলা শোনা যায় না পাখির কলতান ,

তারা যেন হারিয়েছে নিজের বাসস্থান।

চাষিরা হারিয়েছে লাঙল-গোরুর মিলনক্ষেত্র ,

পড়ে রয়েছে যেন পরিত্যক্ত পানিপথের যুদ্ধক্ষেত্র।

সব যেন কোথাও চলে গেছে চির বিদায় নিয়ে ,

আমাদেরকে ভরে গেছে পরিবেশ দূষণকে দিয়ে।


পরিবেশ দূষণ সারা বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে ,

সকলেই এর কবলে আতঙ্কিত রয়েছে।

আজ বৃক্ষরোপনের প্রয়োজনীয়তা এসে পড়েছে ,

বড়ো বড়ো বন-জঙ্গল কেটে পথ-ঘাট ,বাড়ি তৈরী হচ্ছে।

মানুষ আজ খেলার মাঠের চেয়ে ঘর বন্দী হয়েছে ,

অসহায় হয়ে টিভির পর্দায় চোখ রেখেছে।

যুব সমাজ বাইরের খেলার চেয়ে ,মোবাইল -কম্পিউটারে সময় কাটাচ্ছে ,

এতে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম ধীরে ধীরে দূষণের কবলে যাচ্ছে।

বইয়ের পাতায় আর পরীক্ষার খাতায় ,

পরিবেশ দূষণের প্রতিকার খোঁজা হচ্ছে বৃথায়।






পরিবেশ দূষণের ফলে মানুষ নানা রোগে আক্রান্ত ,

কতো মানুষ এর ফলে মৃত্যু বরণ করছে তার নেই অন্ত।

বড়ো বড়ো কল-কারখানার বাইরে দূষণের কারণে ,

খাবারের মধ্যে মিশে যাচ্ছে বিভিন্ন দোকানে।

শিশু থেকে বয়স্ক সকলেই পান করে চলেছি ,

দূষিত জল , দূষিত গ্যাস গ্রহণ করছি।

চারিদিকে প্যাস্টিকের আবর্জনায় ভোরে যাচ্ছে পুকুর -নদী ,

একদিন হয়তো বাসযোগ্য ভূমি থাকবে না ,এইভাবেই চলে যদি।

আজ গঙ্গা নদী দূষিত হচ্ছে কল-কারখানার নোংরা জলে ,

নর্দমা আবর্জনায় ভরে গিয়ে প্লাবিত হচ্ছে জমা জলে।


মশার কামড়ে মানুষ মারা যাচ্ছে ডেঙ্গু,ম্যালেরিয়ায় ,

দূষিত জল পান করে মরছে মানুষ ডাইরিয়ায়।

পশুদের বিচরণের ভূমির অভাব দেখা দিয়েছে ,

চাষের জমি উর্বরতা হারিয়েছে।

শহরের তুলনায় গ্রামগুলিও পিছিয়ে নেই দূষণের তালিকায় ,

সকলের চিন্তার বিষয় পরিবেশ দূষণ আজকে হায় !

পৃথিবীর বুকে ফিরিয়ে দাও সেই অরণ্য ,

যেখানে থাকবে পশু বিভিন্ন।

বৃষ্টিপাতের পরিমান বাড়বে যদি থাকে অরণ্য ,

সকলে যদি সচেতন হয় তো পৃথিবী হবে ধন্য।

----------******----------

Thanks for supporting me. Please comment share and follow me.




How to pollute nature by pollution. When pollution is a big problem in the whole world today?

5 views0 comments

Recent Posts

See All

My Pets

মিঠাই রাণী মনোরঞ্জন দাস মিঠাই রাণী , মিঠাই রাণী , কোথায় তুমি আছো ? আমি আছি তিমায়ের কাছে। মিঠাই রাণী ,মিঠাই রাণী , কতো তুমি ভালো। আমি ভালো তোমার মতো , তুমি যেমন ভালো। মিঠাই রাণী ,মিঠাই রাণী , কোথায়

Raas Purnima

রাস পূর্ণিমা মনোরঞ্জন দাস আজ রাস পূর্ণিমা , খুব সুন্দর সাজে সেজেছে চন্দ্রীমা। অপরূপ রূপের অধিকারী , তার তুলনা একটু না হয় করি। গতকাল আমি অনেক ভেবেছি , একবার এটা তো একবার ওটা করেছি। আসলে জীবনে আমরা যা

Bengal Tiger

দাদা মনোরঞ্জন দাস বাংলার দাদার প্রথম পায়ের ছোঁয়া পেয়েছিল , কলকাতার বেহালা ,সেখানেই তার জন্ম হয়েছিল। ৮ই জুলাই ১৯৭২ সালে তার জন্ম হয়েছিল , মাতা নিরূপা গাঙ্গুলীর কোল আলো করেছিল। পিতা চন্ডীদাস গাঙ্গুল

Comments


bottom of page